সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করতে যাচ্ছি আজকের ফ্রিল্যান্সিং পোষ্ট। আজকের পোষ্টে আমি আপনাদেরকে প্রোফাইল তৈরি সম্পর্কিত আরো কিছু তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করবো। প্রোফাইল তৈরিকরণের আজকের পোষ্টে আমরা “My Public Profile” অংশ সুন্দর করার জন্য কিছু টিপস জানবো।

“MY Public Profile” হলো সেই অংশ যা আপনার প্রোফাইলে সবচেয়ে বেশী প্রভাব ফেলবে। তাই এই অংশটি অত্যন্ত বেশী যত্নসহকারে লিখবেন। আমার মতে কাজ পাওয়ার ৭৫% এই অংশের উপর নির্ভর করে। তাই এই অংশকে আপনি কোনভাবেই এড়িয়ে যেতে পারবেন না।

তাহলে শুরু করা যাক এই অংশের সমৃদ্ধকরণ। আপনার প্রোফাইলে ঢুকে Edit Profile এ ক্লিক করে “My Public Profile” এই অংশের “Edit” বাটনে ক্লিক করুন। ভিতরে ঢুকলে প্রথমেই দেখতে পাবেন- “Profile Access” এটা “Public” সেট করে দিবেন।

তারপর পাবেন- “Display Name”। এটা আপনার পছন্দমত দিয়ে দিবেন। এতে কোনো সমস্যা হবে না।

Display Name এর ঠিক নিচে পাবেন- “Primary Role”। এখানে আপনার কাজের ধরণ দিবেন। অর্থাৎ, আপনি কোন ধরনের কাজ করবেন তা দিবেন। উদাহরণস্বরূপ- আপনি যদি ডাটা এন্ট্রি টাইপের কাজ করেন, তাহলে ডাটা এন্ট্রি দিবেন। আপনি যদি এস.ই.ও বা গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ করেন তাহলে Website/Graphic Designer দিয়ে দিবেন।

এরপর পাবেন- Title। টাইটেলে আপনার কাজের টাইটেল দিবেন। এখানে আপনার কাজের টাইটেল স্পেসিফাই করে দিবেন। আরেকটা কথা, প্রথম অবস্থায় আপনার টাইটেলে বেশী বিষয় দিবেন না। শুধু মাত্র দুই/একটা বিষয়ের নাম দিয়ে দিবেন। আপনি যে যে বিষয় খুব ভালভাবে জানেন শুধু তাই টাইটেলে দিবেন। শুধু শুধু, কাজ করবেন একটা বিষয়ের উপর আর টাইটেলে দিয়ে দিলেন আরেকটা বিষয়, এরকম করবেন না। আপনার টাইটেলকে আপনার কাজের সাথে মিল রেখে দিবেন। প্রোফাইল সমৃদ্ধকরণ শেষ হয়ে গেলে, আপনার টাইটেলের সাথে মিল রেখেই কাজে বিড করবেন। নতুবা, কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা কমে যাবে।

টাইটেল লিখা শেষ হয়ে গেলে পাবেন- “Year of Experience”। এখানে আপনি যে বিষয়ে কাজ করবেন ঐ বিষয়ে আগের কাজের অভিজ্ঞতা নির্ধারণ করে দিবেন। অর্থাৎ আপনার প্রোফাইল টাইটেলে যে কাজের বা বিষয়ের নাম দিয়েছেন, ঐ বিষয়ে আপনার কত বছরের কাজের অভিজ্ঞতা আছে তা লিখবেন। আপনারা যারা বিভিন্ন কাজের সার্কুলার দেখেছেন, তারা হয়তো একটা জিনিস খেয়াল করে দেখবেন, ঐ সার্কুলারে পূর্বের কাজের অভিজ্ঞতা চায়। ওডেস্কের ক্ষেত্রেও একইরূপ। এখানে অবশ্যই আপনি সত্য কথাটা বলবেন।

তারপর আসবে English Skill. এখানে আপনি আপনার ইংরেজী ভাষাতে দক্ষতা কতটুকু তা লিখবেন।

এরপরই পাবেন Objective. এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। একজন বায়ার আপনার প্রোফাইলের বাকী সব অংশ না দেখলেও এই অংশটা একবার অন্তত দেখবে। তাই এই অংশের প্রতি খুব বেশীই খেয়াল রাখতে হবে। আরেকটা কথা, বায়ার যখন কাউকে হায়ার করে তখন কিন্তু তাদের হাতে খুব বেশি সময় থাকে না। তাই এই অংশ লিখার সময় আপনি এমনভাবে লিখবেন যাতে আপনার কথার প্রথম দুই/এক লাইন পড়ামাত্রই বায়ার আপনার অভিজ্ঞতা সম্পর্কে ধারণা পেয়ে যায়। এইখানে আপনার কাজের বর্ণনা লিখবেন। লেখায় এ কথা প্রমান করতে চাইবেন যে, আপনি খুব সৎ এবং পরিশ্রমী লোক। এছাড়াও আপনার কিছু পূর্বের কাজের লিংক দিয়ে দিবেন।

ওডেস্কে প্রোফাইল তৈরীসহ আরো ফ্রিল্যান্সিং টিউটোরিয়ালের জন্য  ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কিত আল-হেরার আপডেট ভিডিও টিউটোরিয়ালগুলো সংগ্রহ করতে পারেন। এখানে সবকিছুর বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

আর্টিকেলটি পছন্দ হলে নিচে মন্তব্যের মাধ্যমে আপনার মতামত জানাবেন। আসলে আপনাদের মন্তব্য পেলে লিখতে উৎসাহ পাই।

আজ এখানেই থাক, পরবর্তী আর্টিকেল নিয়ে খুব তাড়াতাড়ি আপনাদের মাঝে হাজির হব। ততক্ষণ পর্যন্ত সবাই ভাল থাকবেন।

Advertisements